Home / স্বাস্থ্য কথা / ছে’লেরা প্রতিদিন কিসমিস খাবেন কেন, উপকারিতা স’ম্পর্কে জানলে অ’বাক হয়ে যাবেন

ছে’লেরা প্রতিদিন কিসমিস খাবেন কেন, উপকারিতা স’ম্পর্কে জানলে অ’বাক হয়ে যাবেন

কিসমিস হচ্ছে রো’দে বা ড্রা’য়ারে শোকানো আঙুর। রঙ সোনালী কিংবা গাঢ় বাদামী। কিসমিস যেমন নানা ধরনের সুখাদ্যে রান্নার সময়ে দেয়া হয়, তেমনি হে’লথ ট’নি’ক বলুন বা হা’ই এ’না’র্জি ফু’ড সা’প্লি’মে’ন্ট হিসেবেও খাওয়া হয়ে থাকে। শুকনো বলে কিসমিস-এর ফাইবারগুলোও শু’কি’য়ে থাকে।

ফলে জলের মধ্যে পড়লে সেগু’লি ফুলে ওঠে। এটা পেটের ভেতরে বাকি খাবারের সাথে গেলে পেটের স্বাভাবিক ফ্লু’ইডগু’লিকে টে’নে নিয়ে ফু’লে ও’ঠে এবং খাবার পা’কস্থ’লী থেকে নি’চে না’মতে সাহায্য করে, ফলে কো’ষ্ঠকা’ঠিন্য স’ম’স্যায় যারা ভো’গেন তারা নিয়মিত কি’সমি’স খেতে পারেন। কি’সমি’সে যে ফাইবার থাকে সেটা জলে গলে না, তাই এটাকে ই’নস’লিউ’বল ফা’ইবার বলা হয়। সেই জন্যই কি’সমি’স জল টে’নে ফু’লে ও’ঠে।

একইভাবে, ডা’য়েরি’য়া স’ম’স্যাতেও কি’স’মিস সাহায্য করে, কারণ স্টু’লের অ’তিরিক্ত জল শু’ষে নেয় কিসমিস, ফলে বারবার বেগ পাওয়াটা আ’ট’কে দেয়। সব ড্রা’য়েড ফ্রুট যেমন খেজুর কা’জুবা’দাম ইত্যাদির মতই, কিসমিস ওজন বাড়াতে সাহায্য করে।

কারণ এতে আছে প্রচুর ফ্রু’ক্টো’জ এবং গ্লুকো’জ এবং পো’টেনশি’য়াল এ’না’র্জিতে ভরপুর এই কিসমিস।ব’ডিবি’ল্ডার বা এথলেটদের ক্ষেত্রে কি’সমি’স খেতে বলা হয় কারণ তাদের প্রচুর এনা’র্জি লাগে বা ওজন বাড়ানোর জন্য ক্ষ’তি’কর কো’লেস্টে’রল

এড়িয়ে কিসমিস খেলে সুস্থ ভাবে ওজন বাড়তেও সাহায্য পাওয়া যায়। কিসমিসে আছে ভিটামিনস, অ্যা’মাই’নো অ্যা’সি’ড এবং সে’লেনি’য়াম এবং ফ’সফ’রাসের মত মিনারেল, যেগু’লি প্রো’টিন এবং অন্যান্য নি’উট্রি’য়েন্টগু’লিকে শো’ষি’ত হতে সাহায্য করে।

এছাড়াও কিসমিস অন্যান্য খাবার থেকে প্রাপ্ত ভি’টামিন, প্রো’টিন শরীরে শু’ষে নিতেও সাহায্য করে, ফলে সার্বিক এ’না’র্জির মা’ত্রা বৃ’দ্ধি পায় এবং শ’রী’রের ই’মি’উন সিস্টেমকে আরো শ’ক্তিশা’লী করে তোলে।

সে”ক্সু’য়াল সম’স্যা প্র’তিরো’ধ: কি’সমি’সকে বহুদিন থেকেই লি’বি’ডো’ ব’র্ধনকারী হিসেবে ব্যবহার করা হয়। আ’র্জি’নিন যা পাওয়া যায় কি’স’মিসে, তা স্পা’র্মে’র চলাচলে সাহায্য করে, যেটি গ’র্ভ’ধা’রণে সাহায্য করে। ভা’র’তীয় বিয়েতে বৌ’ভাতের দিনে বর ব’ধূ’কে

গ’রম দু’ধে কি’সমি’স এবং কে’শর দিয়ে খাওয়ানোটা প্রাচীন রীতি। যাদের যৌ” ন স’হন’শী’লতা কম, তাদেরকেও রেগুলার কি’সমি’স খেতে পরাম’র্শ দেয়া হয়।তবে অধিক পরিমাণে কি’সমি’স খেলে স’ম’স্যা’ হতে পারে, তাই অবশ্যই ডা’ক্তা’রের পরাম’র্শ নিয়ে খাবেন, বিশেষ করে যাদের ডা’য়াবে’টি’স আছে, তারা। কারণ ফ্রু’ক্টো’জ বা গ্লু’কো’জ ডা’য়াবে’টিস-এর রো’গী’র জন্য মা’রা’ত্ম’ক হতে পারে। কিসমিস ছোট হলেও উপকারিতা অনেক।

About admin

Check Also

পরিচালককে নিষেধ করেও থামাতে পারেননি স্পর্শিয়া!

সম্প্রতি অনন্য মামুন পরিচালিত সিনেমা ‘নবাব এলএলবি’ ওটিটি প্ল্যাটফর্ম আই থিয়েটারে মুক্তি দেয়া হয়। যেখানে …

2 comments

  1. I blog often and I genuinely appreciate your information. This great
    article hass reaslly peaked my interest. I’m going to bookmark your site and keep checking ffor new information about once a week.
    I subscribed to your Feed too.
    https://flattr.com/@cherylbrown199337
    best online essay wriiting service
    F – Rosita – https://www.intensedebate.com/people/celitime1978

  2. I enjoy looking through a post that will make people think.

    Also, thank you for allowing me to comment!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *