Home / অন্যান্য / জে’নে নিন যে নিয়মে রসুন খেলে পু’রুষের গো”প”ন ক্ষ’মতা বেড়ে যায় ১০০০ গুণ

জে’নে নিন যে নিয়মে রসুন খেলে পু’রুষের গো”প”ন ক্ষ’মতা বেড়ে যায় ১০০০ গুণ

যে নিয়’মে রসুন খেলে পু’রুষের গো’পন ক্ষ’মতা বেড়ে যায় ১০০০ গুণ! – ভা’লোভাবে বেঁ’চে থাকার জ’ন্য যেটা প্রা’থমিক’ ভাবে ;দরকার সেটা হল আমাদের সু’স্থ থাকা। সে যে কাজই হোক, শ’রীর সু’স্থ থাক’লে কাজে ‘এনার্জি আসে। শ’রীর সু’স্থ ;থাক’লে সা’থে মনও ভা’লো থাকে।

 

এই শ’রীর সু’স্থ রাখার উপায় আ’ছে ;আ’পনার নিজে’র’ হা’তের মুঠোয়। সেই জিনিস’টি আ’পনার নিত্য প্রয়োজ’নীয় জিনিসের’মধ্যেই প’ড়ে। কিন্তু ‘;অনেকেই জা’নেন না সেই জিনিসের বি’ষয়ে। জিনিস’টি হল রসুন, যা আ’পনার বা’ড়িতে প্র’তিদিনের স’ব্জির ঝুড়িতেই থাকে।

 

যা প্র’তিদিন খেলে ;আ’পনার শ’রীরে কোন রো’গ বাসা বাঁধতে পারবে না। এটি বৃ’দ্ধি করে আ’পনার যৌ-ন ক্ষ’মতা। বর্তমা’ন ভে’জা;’;’লের যুগে প’রিবেশ দূষণের স’ময় মা’নুষ অ’সু’স্থ হয়ে পড়ছে। v কমে যা’চ্ছে তা’দের শা’রীরিক ক্ষ’মতাও।

 

বি’শেষ করে পুরু’ষদের মধ্যে শা’রীরিক অক্ষ’মতা বলতে যৌ-ন অক্ষ’মতার ক’থা বলা হয়েছে। কমে যা’চ্ছে শুক্রানুর প’রিমা’ন। অধিকাংশ পুরু’ষ অ’ক্ষ’ম হয়ে পড়ছে। এস’ব হচ্ছে বর্তমা’ন যুগের কাজে’র চা’প, অনিয়’মিত জীবনযাত্রার কারনে।

 

বি’জ্ঞানিরা জা’নিয়েছেন প্র’তি মি’লি স্পা’র্মে ২;’০ মি’লিয়ন শু’ক্রাণু থাকে। তা না হলে সেই স্পা’র্ম অ’নুর্বর হয়।এরকম স’’মস্যা থাক’লে আ’পনাকে একমাত্র বাচাতে পারে রসুন। কিন্তু যখন তখন রসুন খেয়ে নিলে কোন কাজ হবেনা।

 

রসুন খাওয়ার কিছু নিয়’ম আ’ছে। জে’নে নি’;ন – ৩। যারা পড়ন্ত যৌ’বনে আ’ছেন তাড়া প্র’তিদিন;রসুন হালকা আঁচে ঘিয়ে ভেজে খান। তাহলে আ’পনার যৌ’বন আরো কিছুদিন ধ’রে রাখতে পারবেন। কিন্তু তার প’র এক গ্লাস গরম দু’ধ খেতে হবে। তাহলে খুব ভা’লো কাজে আস’বে।’ ৪। ব’য়স্কদের চামড়া কুঁচকে গেলে তা টানটান ক’রতে সাহায্য করে রসুন।

 

কিন্তু শ’রীরের জ’ন্য কোন কিছুই অ’তিরিক্ত ভা’লো নয়। রসুন শ’রীরে র’ক্ত জমাট বাঁধতে দিতে বা’ধা দেয়। তাই কোথাও কে’টে গেলে স’হজে র’ক্ত ব’ন্ধ হতে চায়না। বি’জ্ঞান ব’লে একজ’ন প্রা’প্ত ব’য়স্ক সু’স্থ্য পুরু’ষ একবার মে’লামেশা করলে …

 

বি’জ্ঞান ব’লে একজ’ন প্রা’প্ত ব’’য়স্ক সু’স্থ্য পুরু’ষ এ;কবার স’হবাস করলে যে প’রিমা’ন বী’র্য নির্গত হয় তাতে ৪০ কোটি শু’ক্রাণু থাকে। তো, লজিক অ’নুযায়ি মে’য়েদের গ’র্ভে যদি সেই প’রিমা’ন শু’ক্রানু স্থান পেতো তাহলে ৪০ কোটি বাচ্চা তৈরি হতো! এই ৪০

 

কোটি শুক্রাণু, মায়ের জ’রা’য়ুর দিকে পা’গলের মত ছুটতে থাকে, জীবি’ত থাকে মাত্র ৩০০-৫০০ শুক্রাণু। আর বাকিরা ? এই ছুটে চলার পথে ক্লান্ত অথবা প’রা’জিত হয়ে মা’রা যায়। এই ৩০০-৫০০ শুক্রাণু, যেগুলো ডিম্বানুর কাছে যেতে পেরেছে।তাদের মধ্যে মাত্র একটি মহা শ’ক্তিশালী শু’ক্রাণু ডি’ম্বা’নুকে ফার্টিলাইজ করে, অথবা ডি’ম্বানুতে আসন গ্রহ করে। সেই ভাগ্যবান শু’ক্রাণুটি হচ্ছে আ’পনি কিংবা আমি, অথবা আম’রা স’বাই।

 

চাষকৃত জমি ছাড়াও বসতবাড়ির আশপাশেও লাউয়ের চাষ করা যায়। তবে এ সবজিটি চাষাবাদে বিশেষ  প্রয়োজন রয়েছে।বাংলাদেশে প্রায় সব ধরনের মাটিতে লাউ চাষ করা যায়। তবে ও বেলে দোআঁশ মাটি বেশ উপযোগী।

 

বারি লাউ–১ জাতটি দেশের আবহাওয়ার জন্য উপযুক্ত। এ সবজি রোপণের সঠিক সময় আগস্ট থেকে সেপ্টেম্বর। লাউ শীতকালীন ফসল হলেও এর চাষ করা হয়  অর্থাৎ বেশি শীতও নয়, আবার বেশি গরমও নয়–এমন সময়ে। শীতকালের শুরুতে এর গাছ হয়।

 

লাউ চাষের জন্য পলিথিন ব্যাগে চারা তৈরি করা উত্তম। এছাড়া মাটি দিয়ে মাদা তৈরি করে চারা উৎপাদন করা যায়। বীজ থেকে চারা উৎপাদন হলে বাড়ির আশেপাশে চারা লাগানো যেতে পারে। বেশি পরিমাণে লাউয়ের চাষ করতে চাইলে চাষকৃত জমিতে চাষ ও মই দিয়ে রোপণের জন্য তৈরি করতে হবে। নির্দিষ্ট দূরত্বে প্রতি মাদায় দুটি করে চারা রোপণ করতে হয়। মাদার ওপরে মাচা দেওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। রবি মৌসুমে লাউ মাচাবিহীন অবস্থায় চাষ করা যায়। রোপণের পর মাটির অবস্থা বুঝে সেচ দিতে হবে। লাউয়ে তেমন নেই। তবে দেখা দিতে পারে। এ থেকে করতে হবে। দুই থেকে তিন মাসের মধ্যে লাউ খাওয়ার উপযুক্ত হয়। হ কৃষি–কৃষ্টি ডেস্ক

About admin

Check Also

ভে’’তর আ’ঙুল প্র’বে’শ না ক”রালে আ’মার ভা”লো লা’গে না!

নিয়মিত হ’স্তমৈ’থুন শ’রীরের জন্য ভালো। তবে এটা খুব বেশি করলে এবং সেই অনুপাতে শ’রীরের যত্ন …

One comment

  1. Hello! This is my first comment here so I just wanted to give a quick
    shout out and tell you I truly enjoy reading your posts.
    Can you recommend any other blogs/websites/forums that
    cover the same topics? Thanks a ton!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *