Home / বিনোদন / চোখের জলে ধুঁয়ে গেল মেকআপ, নতুন বউয়ের আসল রূপ দেখে চমকে গেলেন বর, তুমুল ভাইরাল ভিডিও

চোখের জলে ধুঁয়ে গেল মেকআপ, নতুন বউয়ের আসল রূপ দেখে চমকে গেলেন বর, তুমুল ভাইরাল ভিডিও

বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে মাঝে মধ্যে নানান ধরনের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। এইসব ভিডিও যেমন কিছু মজাদার রয়েছে আবার কিছু ভিডিও রয়েছে যেগুলো দেখে আপনার চোখে জল আসতে পারে। তবে আজকে কোন দুঃখের ভিডিও নিয়ে আলোচনা করবো না। আজকে একটা মজার ভিডিও আপনাদের সামনে তুলে ধরবো।

কথায় আছে কোনকিছুই অতিরিক্ত করা ভালো নয়। সব সময় ব্যালেন্স রেখে চলা উচিত। সব ক্ষেত্রেই ব্যালেন্সটা মানা উচিত। হঠাৎ কেন এই ব্যালেন্স এর কথা বলছি সেটাও খুব শীঘ্রই বুঝতে পারবেন। এখনকার দিনের মেয়েরা খুব মেকআপ করতে পছন্দ করেন।

তবে এর মধ্যে ব্যাতিক্রম নিশ্চয়ই রয়েছে। এই অতিরিক্ত মেকআপ করতে গিয়ে ঘটে যায় নানা রকমের বিপত্তি। যেমন অনেকেই তার ত্বকের রঙ এর থেকে অনেক বেশি মেকাপ করে ফেলে। যার ফলে তার শরীরের ত্বকের সঙ্গে মুখের ত্বক একদমই মানায় না। সেটা বুঝতে পরে অনেকে আবার বুঝতে পেরেও না বোঝার ভান করে।

আর এই মেকআপ করে সুন্দরী হওয়ার জন্য সবথেকে বেশি সমস্যায় পড়েছেন ছেলেরা। কিছু কিছু মেয়েরা আছে যারা আদতেও এত সুন্দরী নয় কিন্তু মেকআপে অসাধারণ সুন্দরী হয়ে উঠেছেন। পড়ে তাদের আসল রূপ বেরিয়ে গিয়েছে। সম্প্রতি এমনই এক ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে।

যেখানে দেখা গেছে বিয়ে শেষ হওয়ার পর গাড়িতে করে বর এবং কনে শ্বশুরবাড়ি যাচ্ছে আর স্বভাবতই বাপের বাড়ি ছেড়ে আসার ফলে কনের চোখে অঝোরে কান্না। আর কাঁদতে কাঁদতে তার সমস্ত মেকআপ উঠে গিয়েছে এবং পরবর্তীকালে দেখা যাচ্ছে ওই কনে ক্লান্ত হয়ে ঘুমিয়ে পড়েছে।

আর তার স্বামী রুমাল দিয়ে তার মুখ মুছিয়ে দিচ্ছে। মুখ মুছতে গিয়ে মেকআপ উঠে আসছে। এর পরেই মেয়েটির আসল চেহারা বেরিয়ে এসেছে।

আর এই ভিডিও মুহূর্তে ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। যদিও এটি দেখেই বোঝা যাচ্ছে যে ইচ্ছাকৃতভাবে করা ভিডিও। কিন্তু তবুও একটা মজার ভিডিও দেখে মানুষের মনে আনন্দ হয়েছে এবং বিভিন্ন ধরনের মজাদার কমেন্টে আসছে এ ভিডিওকে কেন্দ্র করে।

About admin

Check Also

ম’হিলারা কোন ধরনের ছে’লেদের সাথে প’রকিয়া করে।

কথায় আছে ‘মেয়েদের মন নাকি ঈশ্বর ও বুঝতে পারেন না’। মেয়েরা কখন কি চায়, কাকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *